সেক্স টিপস লেবেলটি সহ পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে৷ সকল পোস্ট দেখান
সেক্স টিপস লেবেলটি সহ পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে৷ সকল পোস্ট দেখান

মঙ্গলবার, ৩ এপ্রিল, ২০১৮

মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুনের আসক্তি দূর করার চিকিৎসা আছে - জানেন কি ?

মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুনের আসক্তি দূর করার চিকিৎসা আছে - এই সত্যটি এই আধুনিক জ্ঞান বিজ্ঞানের যুগেও অনেক শিক্ষিত তরুণরাও জানে না। এর প্রধান কারণ হলো তরুণরা যখন এই সমস্যায় আসক্ত হয়ে পড়ে অর্থাৎ এটি না করে একদিনও থাকতে পারে না তখন এর ট্ৰিটমেন্টের জন্য তারা এলোপ্যাথি ডাক্তারদের কাছে যায়। অথচ পুরু এলোপ্যাথি চিকিৎসা শাস্ত্রে স্ত্রীরোগ এবং পুরুষের যৌনরোগেরই কার্যকর কোন চিকিৎসা নাই। আর এই কারণে এই সকল সমস্যায় স্বয়ং এলোপ্যাথি ডাক্তারগণও হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা নিয়ে থাকে। কিন্তু তাদের কাছে সেই একই রোগ নিয়ে গেলে তারা কয়েকযুগ আগের মেডিক্যাল থিওরি (বর্তমানে অকার্যকর) শুনিয়ে রোগীদের বুঝিয়ে টাকাটা ঠিকই নিয়ে নেয়। কিন্তু সমস্যাটি নির্মূলের জন্য আদৌ কোন কার্যকর ট্রিটমেন্ট দিতে পারে না।

এলোপ্যাথিতে মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুন আসক্তির চিকিৎসা 

মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুনের আসক্তি নিয়ে যখন কোন তরুণ এলোপ্যাথি ডাক্তারদের কাছে যায় তখন তারা সরাসরি এর চিকিৎসা দেয় - আপনি বিয়ে করুন অথবা এক গাদা অকার্যকর নিয়ম কানুন ধরিয়ে দিয়ে বলে এই গুলি মেনে চলুন, অথচ  হস্তমৈথুনের আসক্তির অবস্থায় এই সব নিয়ম কানুন প্রায় সবই অকার্যকর সেটা তারা নিজেরাই জানে। অনেক ডাক্তার এই যুগেও এটিকে সরাসরি মানুসিক রোগ বলেই চালিয়ে দেয়। অথচ শরীরে যেকোন রোগ হলে সেটা মন মানুষিকতার উপর প্রভাব ফেলবে সেটা অস্বাভাবিক কিছু নয়। যেমন ধরুন আপনার জ্বর আসল, জ্বর আসলে আপনার মন মানুষিকতাও ভালো থাকবে না এটাই স্বাভাবিক কিন্তু জ্বর তো আর মানুষিক রোগ নয়।
মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুনের আসক্তি দূর করার চিকিৎসা আছে - জানেন কি ?
এলোপ্যাথি ডাক্তাররা যখন দেখলো সারা বিশ্বে কোটি কোটি তরুণ শুধুমাত্র হোমিও চিকিৎসার মাধ্যমেই মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুনের আসক্তি থেকে মুক্তি পাচ্ছে এখন তারা বলে বিয়ে করে ফেলুন। বাহ্ কি চমৎকার চিকিৎসা !! এখন এলোপ্যাথি ডাক্তারেরদের সেই সব ভুয়া কথাবার্তা জনগণ আর খায় না। কারণ মানুষ বাস্তব প্রমানকেই গুরুত্ব দিবে এটাই স্বাভাবিক।

হোমিওপ্যাথিতে মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুন আসক্তির চিকিৎসা 

আপনি এই আধুনিক জ্ঞান বিজ্ঞানের যুগেও দেখবেন - অনেক কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষিত নামধারী কিছু মূর্খ রয়েছে যারা ইন্টারনেট সার্চ করে এলোপ্যাথদের আদি যুগের কিছু থিওরী টেনে বলবে মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুনের আসক্তি দূর করার কোন ঔষধ নেই। এটা একটা পাগলের প্রলাপ ছাড়া আর কিছুই নয়।
আধুনিক হোমিওপ্যাথির ডাক্তার হাসান-ই প্রায় ২০ হাজারের বেশি  তরুণদের প্রপার ট্রিটমেন্ট দিয়ে তাদের মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুনের আসক্তি দূর করেছেন। যদি ঔষধ না থাকতো তাহলে তিনি সেটা করলেন কি করে ?
একটা বিষয় আমাদের ভুলে গেলে চলবে না - আল্লাহ পাক যেমন রোগ দিয়েছে তার চিকিৎসাও দিয়ে রেখেছেন। হয়তো সেটা, এলোপ্যাথিতে না থাকলে হোমিওপ্যাথিতে আছে বা আয়ুর্বেদ বা অন্য কোন চিকিৎসা শাস্ত্রে রয়েছে। কিন্তু আপনি একটি ছাড়া বাকিগুলি বিশ্বাসই করলেন না - এটা আপনার দোষ, আল্লাহ পাকের কোন দোষ নেই। আর শেষ বিচারের দিন আল্লাহকে কেউ এই কারণেই দোষ দিতে পারবে না।

এদেশে চিকিৎসার কিছু বাস্তবরূপ 

আরেকটি বিষয় হলো - কিছু দিন আগে দেশের একজন নামকরা ডার্মাটোলোজিস্টকে বলতে শুনেছি যে - এই দেশের অনেক বড় বড় হাসপাতালে চাকরি করেন এমন অনেক বড় মাপের ডাক্তারদের ৬০% ই নাকি হাতুড়ে চিকিৎসক। অর্থাৎ নানা প্রভাব খাটিয়ে চাকরী নেয় এবং প্রমোশন নেয় কিন্তু রোগীকে যেখানে যে চিকিৎসা দেয়া দরকার সেখানে সেই প্রপার ট্রিটমেন্টটা তারা দিতে পারে না। তাই রোগীরা সুস্থ না হয়ে একবার এই ডাক্তার আরেকবার ঐ ডাক্তার এই ভাবে ঘুরতে ঘুরতে একসময় মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে এসে একজন হোমিও চিকিৎসকের স্মরণাপন্ন হন অথবা চিকিৎসা নিতে বিদেশ চলে যান । যাই হোক, এটা হলো এ দেশের বড় বড় এলোপ্যাথি ডাক্তারদের অবস্থা। তাহলে আরো যারা আছেন, যারা ফাঁস প্রশ্নপত্র দিয়ে মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি হন এবং ঔষধ কোম্পানির তৈরী করা লেকচার শীট মুখুস্ত করে করে ডাক্তারি পাশ করেন তাদের অবস্থা কোথায় একবার ভেবে দেখুন। দেশের বাহিরে কি রোগীরা চিকিৎসা নিতে এমনি এমনি যায় ??

হোমিওতে পাশ করা আর চিকিৎসা দেয়া এক জিনিস নয়

ও হ্যা, আপনার এটাও জানা দরকার, আমাদের দেশে যেখানে এলোপ্যাথির এই অবস্থা সেখানে হোমিওপ্যাথির কি অবস্থা হতে পারে একবার ভেবে দেখুন। মেডিক্যাল কলেজ থেকে পাশ করা বহু হোমিও ডাক্তার রয়েছে যারা চিকিৎসাই দিতে জানে না। কারণ হোমিওতে পাশ করা আর চিকিৎসা দেয়া এক জিনিস নয়। অথচ হোমিওপ্যাথিই একমাত্র চিকিৎসা বিজ্ঞান যেখানে সর্বাধিক রোগের পারফেক্ট ট্রিটমেন্ট রয়েছে। রোগ যদি ভালো না হয় সেটা ডাক্তারের দোষ, ডাক্তার পরিবর্তন করুন। তবে এটাও আপনার মনে রাখা উচিত অনেক অভিজ্ঞ হোমিও ডাক্তারও যদি ১০০/২০০ টা ট্রিটমেন্ট দেয় তার ক্ষেত্রেও ২/১টি ট্রিটমেন্ট ফল করা অস্বাভাবিক কিছু নয় কারণ সে ফেরেস্তা নয় সেও মানুষ।

ভালো হোমিও ডাক্তার চিনবেন কিভাবে 

যখন কোন হোমিওপ্যাথি ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা নিতে যাবেন তখন আপনি যদি দেখেন সে আপনাকে হারবালদের মতো পেটেন্ট ঔষধ বা ডিব্বা, হালুয়া ধরিয়ে দিচ্ছে তখন বুঝবেন সে হোমিও ডাক্তার নামের কলঙ্ক। সে আপনাকে কিছু দিনের জন্য উপশম করতে পারবে কিন্ত স্থায়ী ভাবে আরোগ্য করতে পারবে না। গুরু হ্যানিম্যান এই প্রকারের হোমিও ডাক্তারকে জারজ বলে অভিহিত করেছেন। বাংলাদেশের অনেক হোমিও ঔষধ প্রস্তুতকারী কোম্পানি হার্বালদের সাথে প্রতিযোগিতা দিতে গিয়ে হোমিও নাম দিয়ে সেই প্রকার ঔষধ বানিয়ে চলছে। আর যে সব ডিগ্রীধারী হোমিও ডাক্তাররা চিকিত্সা দিয়ে জানে না তারাই ঐসব ঔষধ দিয়ে তাদের ফার্মেসী ভরে রাখে। তাদের পরিহার করুন। এই সকল হোমিও ডাক্তাররা মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুনের আসক্তি কেন কোন রোগেরই প্রপার ট্রিটমেন্ট দিতে জানে না। আর এ ক্ষেত্রে লোকজন ডাক্তারকে দোষ না দিয়ে উল্টো হোমিওপ্যাথিকে দোষ দেয়।

 মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুনের ক্ষতি‬

অনেক পুরুষ অতিরিক্ত হস্তমৈথূন্য জনিত কারনে তাদের লিঙ্গে দুর্বলতা অনুভব করেন। এটার প্রধান কারন অল্প বয়সে হস্তমৈথূন্য শুরু করা। যারা অল্পবয়সে হস্তমৈথূন্য করেন তারা বিয়ের পর সংসার জীবনে নানান জটিলতায় ভুগে থাকেন। এমনকি অল্পবয়সে হস্তমৈথূন্যের ফলে লিঙ্গের স্বাভাবিক বৃদ্ধি ব্যহত হয় বলে লিঙ্গের আকার ছোট থেকে যেতে পারে।

অতিরিক্ত হস্তমৈথূন্যের ফলে শক্তি হ্রাস সহ নানাবিধ শারীরিক সমস্যায় ভোগেন। তার মধ্যে উল্ল্যেখযোগ্য হল:
  • শাররীক ব্যথা এবং মাথা ঘোরা। 
  • যৌন ক্রিয়ায় সাথে জড়িত স্নায়তন্ত্র দুর্বল করে দেয় অথবা ঠিক মত কাজ না করার পরিস্থতি সৃষ্টি করে
  • শরীরের অন্য অঙ্গ যেমন হজম প্রক্রিয়া এবং প্রসাব প্রক্রিয়ায় সমস্যা সৃষ্টি করে
  • দৃষ্টি শক্তি দুর্বল করে দেয় এবং মাথা ব্যাথা সৃষ্টি করে
  • হৃদকম্পনে দ্রুততা আসে এবং অনেকে নার্ভাস ফিল করতে পারেন
  • ব্যক্তি কোনো কঠিন শারীরিক বা মানসিক কাজ এর অসমর্থ।  তিনি সাধারণত নির্জনতায় থাকতে চেষ্টা করে এবং তার জ্ঞান বৈকল্য হয়। 
  • দ্রুত বীর্যস্থলনের প্রধান কারন অতিরিক্ত হস্তমৈথুন্য।
  • প্রায় প্রতি তিনজনের একজন পুরুষ যারা অতিরিক্ত হস্তমৈথুন্য করেন তারা নারী সঙ্গীর সাথে শারীরিক মিলনের সময় লিঙ্গথ্থান বা ইরিটিক্যাল ডিসফাংশান সমস্যায় ভোগেন। 
তাই কারো এই সমস্যা থাকলে অতি দ্রুত রেজিস্টার্ড এবং অভিজ্ঞ একজন হোমিও চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করে প্রপার ট্রিটমেন্ট নিন। দেখবেন মন থেকে এই আসক্তি দূর হয়ে গেছে এবং  মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুন সংক্রান্ত যাবতীয় কুফলও দূর হয়ে গেছে।
বিস্তারিত

শুক্রবার, ২৮ নভেম্বর, ২০১৪

সহবাস বা মিলনকালে পুরুষরা আত্মবিশ্বাস বাড়াবেন যে ভাবে

অনেক সময়ই দেখা যায় স্ত্রীকে সামনে পেয়ে মিলনকালে কনফিডেন্স হারিয়ে ফেলেন কিছু কিছু পুরুষ। এমনকী, যে নারীর কথা উত্তেজিত হন পুরুষেরা, অনেক সময় দেখা যায় তাঁকে একান্তে পেয়েও হতাশা-দ্বিধায় ভোগেন পুরুষেরা। কারণ, প্রথমত তিনি একটা বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারেন না, যে তাঁর সঙ্গিনীকে সুখী করতে পারবেন কী না। ঘাবড়াবেন না। আপনার কনফিডেন্স বাড়ানোর জন্য রইল কিছু টিপস।
বিস্তারিত

শুক্রবার, ৩১ অক্টোবর, ২০১৪

যৌন মিলন অধিকক্ষণ স্থায়ী করতে কিছু দরকারী সেক্স টিপস

আজকাল অধিকাংশ পুরুষ দীর্ঘক্ষণ যৌন মিলন করা তো দুরের কথা যেটুকু সময় তার স্ত্রীকে আনন্দ দিতে প্রয়োজন সে সময়টুকুও তারা মিলনে স্থায়ী করতে পারেন না। যদিও এর পেছনে রয়েছে বহুবিধ কারণ। তবে যৌন মিলন নিয়ে যারা মানসিক ভাবে দুর্বলতায় ভুগেন তারা নিম্নলিখিত টিপসগুলো অনুসরন করে লাভবান হতে পারেন যদি অন্য কোন যৌন সমস্যায় আক্রান্ত না হয়ে থাকেন।
যৌন মিলন অধিকক্ষণ স্থায়ী করতে কিছু দরকারী সেক্স টিপস
সহবাস বা যৌন মিলনের আগে করণীয় :-
  • যৌন মিলন শুরু করার আগে মন শান্ত করতে হবে৷ মনে কোন প্রকার নেগেটিভ ভাবনা আনা যাবে না৷  একটি বিষয় অনেকের ক্ষেত্রেই ঘটে  - স্বল্পস্থায়ী যৌনতার একমাত্র কারণ হল তাদের শারীরিক ও মানসিক অস্থিরতা৷
  • নিজেকে শারীরিক মিলেনর জন্য শারীরিক এবং মানসিক ভাবে তৈরি করুন৷ সকল প্রকার মানসিক চাপ, উদ্বেগ কমিয়ে আনুন৷
  • স্ত্রী ছাড়া অন্য কারো সাথে যৌন মিলন থেকে বিরত থাকুন৷ স্ত্রী সাথে আপনার মনের ভাবনা গুলি শেয়ার করুন -  যে আপনার শারীরিক ও মানসিক পরিস্থিতি সরল করতে সাহায্য করবে৷
  • কনডম ব্যবহার করতে পারেন৷তবে অনেক পুরুষরাই অভিযোগ করছেন যে -কনডম ব্যবহারের ফলে তাদের যৌন আকাঙ্খা হ্রাস হচ্ছে৷ তবে এটি মনের ভুল ছাড়া আর কিছুই নয়৷
  • তামাক, মদ ও অন্যান্য ওষুধের অতিরিক্ত সেবন দীর্ঘস্থায়ী যৌনতার ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি করে৷ এইগুলি পরিহার করে চলা উচিত। 
সহবাস বা যৌনমিলনের সময় করণীয় :-
  • যৌনমিলনের আগে কোন মতেই ফোর প্লে বাদ দেবেন না৷ দরকার হলে অধিক সময় নিয়ে ফোর প্লে করুন। 
  • আসন পরিবর্তন করুন৷ নতুন কিছু আপনার মনোযোগকে আরও রোমাঞ্চিত করে তুলতে পারে৷ সঙ্গীর চাহিদার দিকেও নজর দিন৷
  • সহবাসের সময় সঙ্গীর আধিপত্যে লজ্জাবোধ করার কোন কারণ নেই৷
  • ধীরে ধীরে শ্বাসপ্রশ্বাস নিলে পরিশ্রম কম অনুভব হবে ফলে শরীর দীর্ঘক্ষণ যৌনমিলনের জন্য উপযুক্ত থাকবে৷
বিস্তারিত

সহবাস বা যৌন মিলনে অর্গ্যাজাম (Orgasm) যেভাবে ঘটে

অর্গ্যাজাম হলো দাম্পত্য সুখের স্বর্গীয় আনন্দময় এক অনুভুতি । একে আবার রাগমোচনও বলা হয় তবে খাটি বাংলায় বলতে গেলে একে 'প্রচণ্ড উত্তেজনার মাধ্যমে যৌন পরিতৃপ্তি' নামেও অবহিত করা যায় । সহবাসকালীন অর্গ্যাজাম হল একটি স্বতঃস্ফূর্ত এবং স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়া। ঐ সময় শ্রোণী অঞ্চলের মাংসপেশির ছন্দোময় সংকোচনের মাধ্যমে দেহে চরম যৌনসুখ অনুভূত হয়। নারী এবং পুরুষ উভয়েরই অর্গ্যাজাম ঘটে থাকে যৌন মিলনের সময়। অর্গ্যাজাম সম্পূর্ণ ভাবে স্নায়ুতন্ত্র দ্বারা নিয়ন্ত্রিত।
বিস্তারিত

সোমবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৪

যৌন স্বাস্থ্য সুরক্ষায় যে খাবারগুলি বর্জন করা ভালো

আমরা আমাদের যৌন স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য কত কি না করি। কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না যে কিছু কিছু খাবার পুরুষদের যৌন ক্ষমতায় বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। তাই সুস্থ যৌন স্বাস্থ্যের জন্য কিছু বিশেষ খাবার এড়িয়ে চলা উচিত। বিশেষ কিছু খাবার আছে যেগুলো শরীরে যৌন উত্তেজনা কমিয়ে দিতে ভূমিকা রাখে। আসুন জেনে নেয়া যাক যৌন স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এমন কিছু খাবার সম্পর্কে।
বিস্তারিত

সকালে সহবাস বা যৌন মিলনের কিছু সুফল

বিবাহিত নারী পুরুষ তাদের ইচ্ছা অনুযায়ী যে কোন সময় মিলিত হতে পারেন । কিন্তু আপনি জানেন কি ভোরবেলার যৌন মিলনে রয়েছে কিছু স্বাস্থ্যকর সুফল । সকালবেলার যৌন মিলন শরীরের সঙ্গে মনও ভাল রাখে ৷ একটি সমীক্ষাতে এই তথ্য উঠে এসেছে ৷ লন্ডনের বেলফাস্টের কুইন্স ইউনিভার্সিটি এই সমীক্ষা করেছে ৷
বিস্তারিত

সহবাস বা যৌন মিলন হাঁটার চেয়ে ভালো ব্যায়াম

আপনি যদি বিবাহিত হন আর ওজন বেড়ে যায় তবে ওজন কমানোর জন্য হাঁটার চেয়ে যৌণ মিলনই ভালো ব্যায়াম বলে নতুন তথ্য আবিষ্কার করেছে স্বাস্থ্য বিজ্ঞানীরা। গবেষণায় দেখা গেছে যৌন মিলনের সময় প্রতি মিনিটে পুরুষের শরীরে থেকে খরচ হয় ৪.২ ক্যালোরি। আর নারীর ক্ষেত্রে খরচ হয় ৩.১ ক্যালোরি। একটি জার্নালে প্রকাশিত একটি গবেষণায় বলা হয়, হাঁটার চাইতে ভালো ব্যায়াম হলো যৌন মিলন।
বিস্তারিত

শুক্রবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৪

সকালে স্ত্রী সহবাসের কিছু স্বাস্থ্য উপকারিতা

যদিও বিবাহিত নারী পুরুষরা যেকোনো সময়ই নিজেদের ইচ্ছা অনুযায়ী মিলিত হতে পারে তবে সবকিছুরই একটা উপযুক্ত সময় থাকে। দৈহিক মিলনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে উপযুক্ত সময় হল সকাল। অনেকে আছেন মিলনের ক্ষেত্রে তেমন কোন সময় অনুসরণ করেন না। অথচ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এক্ষেত্রে তারা আস্তে আস্তে নিজেদের অসুখী দাম্পত্য জীবনের দিকে ঠেলে দেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, মিলনের উপযুক্ত সময় হল সকাল বেলা । এজন্য তারা বেশ কিছু স্বাস্থ্য উপকারের কথাও তুলে ধরেছেন। তার ভেতর থেকে এখানে কয়েকটি তুলে ধরা দেওয়া হল।
বিস্তারিত

বৃহস্পতিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৪

পুরুষের শুক্রাণুকে দুরন্ত গতি দেয় গাজর

আপনি জানেন কি ? পুরুষের শুক্রাণুকে গতি দিতে গাজরেরও রয়েছে অসাধারণ ভুমিকা। গতিময় জীবনে আপনার শুক্রাণুই বা পিছিয়ে থাকবে কেন? শুক্রাণুকে কি উসেইন বোল্টের গতি দিতে চান? তাহলে অবশ্যই বেশি করে গাজর খান। নতুন এক গবেষণায় উঠে এসেছে শাক-সব্জী সুস্থ সবল শুক্রাণু তৈরিতে বিশেষ ভূমিকা গ্রহণ করে।
বিস্তারিত

শুক্রবার, ২২ আগস্ট, ২০১৪

চল্লিশোর্ধ পুরুষদের শুক্রাণু থেকেই গর্ভধারণের সম্ভাবনা বেশি

পুরুষদের বয়স বাড়লে সন্তান উত্পাদন ক্ষমতা কি করতে থাকে ? এই ধারণাটাই আজ ভুল প্রমাণিত করল বৃটেনের এক দল বিজ্ঞানীদের নতুন গবেষনা। এই গবেষনায় দেখা গেছে চল্লিশোর্ধ দাতাদের শুক্রানু থেকে সন্তান উত্পাদনের সম্ভাবনা অনেক বেশি হয়। অর্থাৎ, শুক্রানু দাতা যদি মধ্যবয়সী পুরুষ হন তবে মহিলাদের গর্ভধারণের সম্ভাবনা থাকে বেশি।
চল্লিশোর্ধ পুরুষদের শুক্রাণু থেকেই গর্ভধারণের সম্ভাবনা বেশি
ইউকে-র নতুন গাইডলাইনে বলা হয়েছিল শুক্রাণু দাতার বয়স হতে হবে চল্লিশের নিচে। কিন্তু, সমীক্ষা বলছে চল্লিশোর্ধ দাতারাই বেশি সক্ষম। ১৯৯১ সাল থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত মোট ৪০,৪০০টি ইউভিএফ চিকিত্সা পদ্ধতির ওপর সমীক্ষা চালানো হয়েছিল। দেখা গিয়েছে ২০ বছরের নিচে শুক্রাণুদাতাদের থেকে ইউভিএফ পদ্ধতিতে গর্ভধারণ যেখানে সম্ভব হয়েছে ২৮.৩ শতাংশ, সেখানে ৪১ থেকে ৪৫ বছর বয়স্ক দাতাদের শুক্রাণু থেকে ইউভিএফ পদ্ধতিতে গর্ভধারণ সফল হয়েছে ৩০.৪ শতাংশ ক্ষেত্রে।

নিউক্যাসল ফার্টিলিটি সেন্টার অ্যাট লাইফের চিকিত্সক মীনাক্ষি চৌধুরী জানালেন, "বয়সের সঙ্গে শুক্রাণুর ক্ষমতা কমার কোনও সম্পর্ক নেই। এটা নির্ভর করে শুক্রাণুর মানের ওপর।"
বিস্তারিত

রবিবার, ১৮ মে, ২০১৪

যৌন মিলনের ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলি মনে রাখা জরুরি

সহবাস বা যৌন মিলনকে আনন্দঘন করতে চাইলে চারটি নিয়ম মেনে চললে আপনার যৌন মিলন মধুর হতে পারে। আপনি যদি এই নিয়মগুলিকে ঠিক ভাবে মেনে পার্টনারের সঙ্গে শারীরিক ভাবে মিলিত হন তাহলে প্রকৃত অর্থে সহবাসের আনন্দ লাভ করতে পারেন।
বিস্তারিত

শনিবার, ১৭ মে, ২০১৪

গর্ভাবস্থায় স্ত্রী সহবাস সম্পর্কে কিছু কথা ।

গর্ভাবস্থায় স্ত্রী সহবাস সম্পর্কে নানান জনে নানান কথা বলে থাকেন । তবে ঐসময়ে সকল দিক বিবেচনা করেই প্রত্যেক নারীর সর্বাধিক নিরাপদে থাকার চেষ্টা করা উচিত। আপনি হয়তো জেনেও থাকবেন যে - সন্তান জরায়ু মুখের অনেক ভিতরে একটি তরল ভর্তি থলির মধ্যে নিরাপদে থাকে। গর্ভাবস্থায় সহবাস বা যৌনমিলনে সন্তানের ক্ষতি হয়েছে এমন ধারণা চিকিৎসা শাস্ত্রে কোথাও এখনও প্রমানিত হয়নি। গর্ভাবস্থায় প্রণয়পূর্ণ শারীরিক সম্পর্ক আপনার ভাল থাকার জন্য জরুরী এবং যৌনমিলন স্ত্রীকে প্রসববেদনার জন্য আরও ভালোভাবে প্রস্তুত করে।
বিস্তারিত

নিয়মিত যৌন মিলন বা সহবাসের শারীরিক উপকারিতাসমূহ

বিয়ের পর নব দম্পতির ভালোবাসা প্রকাশের একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক হলো শারীরিক মিলন৷ আবার শারীরিক প্রয়োজনীয়তার একপ্রকার বহিঃপ্রকাশ সেক্স্যুয়াল অ্যাক্টিভিটি৷ কিন্তু আপনি কি জানেন শারীরিক চাহিদা বা ভালোবাসা প্রকাশের দিক ছাড়াও এর অনেক গুণ আছে যার ফলে আপনার ব্যক্তিজীবন আনন্দে ভরপুর হয়ে উঠতে পারে? তাই নিম্নে সেক্সের শারীরিক উপকারিতা তুলে ধরা হলো -
বিস্তারিত

সোমবার, ১১ নভেম্বর, ২০১৩

পুরুষদের সাধারণ যৌন দুর্বলতার ঘরোয়া সমাধান

প্রায় ৭-৮ মাস আগে চট্টগ্রাম থেকে এক ভদ্রলোক আমার ইংরেজি মাধ্যমের ব্লগ থেকে ইমেইল ঠিকানা সংগ্রহ করে আমাকে তার সমস্যার কথা জানায়। তারপর তাকে আমি আমার ফোন নম্বর দিলে তিনি ফোন করেন। বয়স ৪৩ বছর। ২টা ব্যবসা সামলাতে হয় ভদ্রলোককে। তিন জন ছেলেমেয়ের বাবা। সবদিক মিলে বিশ্রাম নেয়ার সময় নেই বেচারার।
বিস্তারিত

বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ, ২০১৩

যৌন মিলনে উত্তেজনা বৃদ্ধির কিছু কলা কৌশল

যৌন জীবনে এক ঘেয়েমির বিষয়ে অনেক পুরুষই অভিযোগ করে থাকেন । স্বামী স্ত্রী সহবাসে নানা প্রকার কারুময়্তার মাধ্যমে তাদের দাম্পত্য জীবন আনন্দময় করে রাখতে পারেন। একটা বিষয় মনে রাখা জরুরি যে - প্রতিদিন একইভাবে মিলনেও অনেক সময় অনেক নারী পুরুষের যৌন উত্তেজনা হ্রাসের ব্যাপারে ভূমিকা রাখতে পারে। স্বামী স্ত্রী তাদের সহবাসে বৈচিত্রতা এনে অনায়াসেই উত্তেজনা সৃষ্টি যৌন জীবনে এক ঘেয়েমির দূর করতে পারেন। আসুন এ বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নেই।
বিস্তারিত

বুধবার, ২৭ মার্চ, ২০১৩

যৌন মিলনে পুরুষের স্থায়ীত্ব কত মিনিট হওয়া দরকার

অনেক তরুনদের মনেই এই প্রশ্নটা থাকে যে - যৌন মিলনে পুরুষের স্থায়ীত্ব কতটুকু হলে ভালো হয় অর্থাৎ বেস্ট সেক্স এর সময়কাল সাধারনত কত মিনিট হয়ে হবে। বস্তুত যৌন মিলনে পুরুষের স্থায়ীত্ব নিয়ে ধরা-বাধা কোন সময়কাল থাকে না। তবে এ সংক্রান্ত অনেক গবেষণা লব্ধ তথ্য এবং উপাত্ত রয়েছে।
বিস্তারিত

শুক্রবার, ২২ মার্চ, ২০১৩

নারীদের যৌন উত্তেজনা এবং তৃপ্তির লক্ষণ

সহবাসে নারীদের কিভাবে উত্তেজিত করা যায় এ সংক্রান্ত অনেক আর্টিকেল রয়েছে। নারীকে যৌন মিলনে জাগিয়ে তোলার জন্য পুরুষদের কিছু কলাকৌশল অবলম্বন করা ভালো। তাতে তারা দ্রুত মিলনের জন্য প্রস্তত হয়। এখানে এ সংক্রান্ত কিছু টিপস দেয়া হলো :-
বিস্তারিত